জাপানে অতিরিক্ত বৃষ্টিপাতে সৃষ্ট বন্যা ও ভূমিধসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬৬ তে দাঁড়িয়েছে। দেশটির পশ্চিমের শহর কুরাশিকিতে আটকা পড়ে আছে এক হাজার মানুষ। রোববার দেশটির কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, কুরাশিকি শহরটির জনসংখ্যা পাঁচ লাখের কম। জুলাইয়ে স্বাভাবিকভাবে যে ধরনের বৃষ্টিপাত হয়, এবার তারচেয়ে তিনগুন বেশি বৃষ্টি হয়েছে। এ কারণে পশ্চিমের এই শহরটিতে ব্যাপক বন্যা দেখা দিয়েছে। শহরটির অধিকাংশ বাসিন্দাকে সরিয়ে আনা হয়েছে বা সরে গেছে। তবে এখনো এক হাজার লোক সেখানে আটকা পড়ে আছে। এদের মধ্যে একটি হাসপাতালেই আটকা পড়ে আছে ডাক্তার,নার্স ও রোগীসহ শতাধিক লোক।

টেলিভিশনে প্রচারিত দৃশ্যে দেখা গেছে, মাবি মেমোরিয়াল হাসপাতালের বারান্দায় রোগী, ডাক্তার ও কর্মীরা উদ্ধারকর্মীদের জন্য অপেক্ষা করছে। অনেক গাড়িই পানিতে ভেসে গেছে। এছাড়া একটি বৃদ্ধাশ্রম থেকে হেলিকপ্টারে করে আটকে পড়া লোকদের উদ্ধারের চিত্রও দেখা গেছে ফুটেজে।

জাপানের সরকারি সম্প্রচারমাধ্যম এনএইচকে জানিয়েছে, এ পর্যন্ত ৬৬ জন মারা গেছে। এখনো নিখোঁজ রয়েছে ৬০ জন। রোববার প্রবল ‍বৃষ্টিপাত অব্যাহত আছে।

সংবাদ সম্মেলনে আবহাওয়া বিভাগের এক কর্মকর্তা বলেছেন, ‘এ ধরণের বৃষ্টিপাতের অভিজ্ঞতা আমাদের আগে কখনো হয়নি। পরিস্থিতি অনেক বেশি বিপজ্জনক।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *