মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি: মুন্সীগঞ্জে গুলিতে সাইফুল ইসলাম আরিফ ওরফে ‘বাবা আরিফ’ (৩৭) নামে একজন নিহত হয়েছে। এঘটানয় দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। পুলিশের দাবি, বন্দুকযুদ্ধে নিহত সাইফুল শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী এবং ১২টি মামলার আসামি।ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে একটি পিস্তল, দুই রাউন্ড গুলি ও দেশীয় অস্ত্র। গতরাত (বুধবার) আড়াইটার দিকে পৌর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ জানায়, রাতে শতাধিক পিস ইয়াবাসহ দূর্গাবাড়ি গ্রাম থেকে সাইফুলকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে, তাকে সাথে নিয়ে কাটাখালী হায়দ্রাবাদ গ্রামে অস্ত্র উদ্ধারে যায় পুলিশ।

এসময় তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি চালায় সন্ত্রাসীরা। পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়লে শুরু হয় বন্দুকযুদ্ধ। এসময় বাকিরা পালিয়ে গেলেও গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয় সাইফুল। নিহতের লাশ মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। এছাড়া এ ঘটনায় আহত দুই পুলিশ কর্মকর্তা একই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, একাধিক মামলায় দীর্ঘদিন কারাভোগের পর মাসখানেক আগে জামিনে মুক্তি পান আরিফ। এরআগে সে জেলে থাকার সময় পুলিশের এক এএসআই’র সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন তার স্ত্রী সাবিনা আক্তার রুনু। একসময় ওই পুলিশ সদস্যের সঙ্গে ইয়াবা ব্যবসাও শুরু করেন রেনু। গত মার্চের প্রথম সপ্তাহে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশ তার বাসা থেকে ৪৯ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ গ্রেপ্তার করে। পরে পরকীয়ায় অভিযুক্ত ওই পুলিশ সদস্যের স্বীকারোক্তিতে আরিফের স্ত্রী রুনুকে পুলিশ আটক করে ৫দিনের রিমান্ডে নেয়। বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন সাবিনা আক্তার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *